আপনার যত জিজ্ঞাসা

যে সকল চিকিৎসক ডাক্তার দেখাও অ্যাপে সেবা প্রদান করেন তারা সবাই বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল (বিএমডিসি) দ্বারা লাইসেন্সপ্রাপ্ত। এছারাও তারা বাংলাদেশের বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলিতে অনুশীলন করেন। এবং সকল ডাক্তারদের ডাক্তার দেখাও-এর বিশেষজ্ঞ প্যানেল দ্বারা অনুশীলন দেয়া হয় এবং স্ক্রীনিং প্রক্রিয়ায় তাদের কর্মকাণ্ড পর্যালোচনা করা হয় ।

একজন অভিজ্ঞ ডাক্তার ভিডিও পরামর্শের সময় রোগীর মুখোমুখি হয়ে সাধারণ সমস্যা গুলো শুনে রোগ নির্ণয় করতে পারেন। তারা সাধারণত আপনার ইতিহাস, বর্তমান লক্ষণগুলো দেখে এবং আপনার সাথে কথা বলার দ্বারা এটি করে। শারীরিক স্পর্শ প্রয়োজন হলে ডাক্তার রোগীদের তাদের নির্দেশাবলী আনুযায়ী কিছু জিনিস জানতে বা দেখতে চাইতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, শরীরের কোন অংশে ব্যাথার জন্য ডাক্তার রোগীকে সেখানে চাপ দিতে বলতে পারে অথবা একজন রোগীকে জ্বরের সন্দেহ থাকলে, পরামর্শের সময় তাকে থার্মোমিটার দিয়ে জ্বর পরিমাপ করতে বলা হয়। ডাক্তার যদি আপনার অবস্থার আরও কিছু পরীক্ষা করার প্রয়োজন বোধ করেন তবে তিনি আপনাকে বিভিন্ন ল্যাবরেটরী পরীক্ষার জন্য যেতে পরামর্শ দেবেন। যখন আপনি রিপোর্ট পাবেন তা ডাক্তার দেখাওঅ্যাপে সংযুক্ত করে পুনরাই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

আমাদের ভিডিও পরামর্শ সেবা ২৪/৭ দেয়া হয়, যার অর্থ আপনি যেকোনো সময় ভিডিও পরামর্শের জন্য অনুরোধ করতে পারেন। তবে, যদি কোনও সরবরাহকারী ৩০ মিনিটের মধ্যে আপনাকে দেখতে সক্ষম না হয় তবে আপনার কাছে পরবর্তী সময়ে একটি অ্যাপয়েন্টমেন্ট নির্ধারণের বিকল্প রয়েছে।

জি হ্যাঁ। আপনি আপনার পছন্দ মত ডাক্তার সিলেক্ট করতে পারবেন। এমনকি বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের তালিকা থেকে আপনার পছন্দের চিকিৎসককে বেছে নিতে পারেন।

ভিডিও পরামর্শের সময় নিম্নলিখিত সরঞ্জামগুলি আপনার সাথে থাকলে উপকারী হতে পারে:

  • থার্মোমিটার/তাপমাত্রা পরিমাপ
  • টর্চলাইট বা মোবাইল ফোন টর্চলাইট
  • রক্তচাপ এবং হার্ট রেট পরীক্ষা করার জন্য যন্ত্র
  • ডায়াবেটিক্সের জন্য গ্লুকোমিটার
  • ওজন পরীক্ষা করার জন্য স্কেল
  • অন্যান্য সরঞ্জাম যা পরামর্শের জন্য সহায়ক হবে

একজন অভিজ্ঞ এবং যোগ্য ডাক্তার ভিডিও পরামর্শের সময় রোগীর মুখোমুখি হয়ে সাধারণ সমস্যা গুলো শুনে রোগ নির্ণয় করতে পারেন। তারা সাধারণত আপনার ইতিহাস, বর্তমান লক্ষণগুলো দেখে এবং আপনার সাথে কথা বলার দ্বারা এটি করে। শারীরিক স্পর্শ প্রয়োজন হলে ডাক্তার রোগীদের তাদের নির্দেশাবলী আনুযায়ী কিছু জিনিস জানতে বা দেখতে চাইতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, শরীরের কোন অংশে ব্যাথার জন্য ডাক্তার রোগীকে সেখানে চাপ দিতে বলতে পারে অথবা একজন রোগীকে জ্বরের সন্দেহ থাকলে, পরামর্শের সময় তাকে থার্মোমিটার দিয়ে জ্বর পরিমাপ করতে বলা হয়। ডাক্তার যদি আপনার অবস্থার আরও কিছু পরীক্ষা করার প্রয়োজন বোধ করেন তবে তিনি আপনাকে বিভিন্ন ল্যাবরেটরী পরীক্ষার জন্য যেতে পরামর্শ দেবেন। যখন আপনি রিপোর্ট পাবেন তা ডাক্তার দেখাওঅ্যাপে সংযুক্ত করে পুনরাই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

অনেক সাধারণ অসুস্থতা এবং দীর্ঘস্থায়ী রোগ কার্যকরভাবে ভিডিও পরামর্শ মাধ্যমে চিকিৎসা করা যেতে পারে। নিচে কিছু সাধারণ সমস্যার উল্লেখ করা হয়েছে। এই তালিকাটি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং ডিরেক্টরেট জেনারেল অফ হেল্থ সার্ভিস কর্তৃক অনুমোদনের জন্য আবেদন করা হয়েছে।

সাধারণ অসুস্থতা

  • জ্বর
  • কাশি, গলা ব্যথা বা ল্যারিঞ্জাইটিস
  • ডায়রিয়া / বমি
  • ফ্লু/ ঠান্ডা জ্বর/সর্দি
  • সাইনাসের প্রদাহ
  • ফুসকুড়ি এবং চর্মরোগ
  • ঘা
  • মাথা ব্যাথা
  • মাথা ঘোরা/দুর্বলতা

পরামর্শ ফি বিভিন্ন মোবাইল ব্যাংকিং সিস্টেম অথবা অনলাইন পেমেন্টের মাধ্যমে দেয়া যাবে। এছাড়া হেলথ প্যাকেজ কার্ড ক্রয় করেও কল করা যাবে।

আমাদের ডাক্তাররা বিভিন্ন ধরনের ঔষধ প্রেসক্রিপশন করতে পারেন। যেহেতু সকল ডাক্তারই বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল (বিএমডিসি) কর্তৃক নিবন্ধিত তাই প্রয়োজন অনুযায়ী সকল ধরনের ঔষধ প্রেসক্রিপশন করতে পারেন। তবে কোন প্রকার প্রমাণ বা রিপোর্ট ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক দেয়া হয় না। বিশেষ দ্রষ্টব্য যে আমাদের ডাক্তাররা কোনও মাদকদ্রব্য প্রদান করেন না।

আমাদের ডাক্তারদের ভিডিও পরামর্শের জন্য উপযুক্ত না অথবা জরুরীর সেবা সনাক্ত করার জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। ভিডিও পরামর্শের জন্য উপযুক্ত কিনা তা নিশ্চিত করার জন্য আমাদের ডাক্তার প্রতিটি পরামর্শের দুই মিনিটের মধ্যে তা পর্যালোচনা করবে। অনুপযুক্ত বলে বিবেচিত হলে ডাক্তার আপনাকে হ্যালো ডাক্তারের ইমারজেন্সি মেডিকেল সার্ভিসে রেফরড করবেন অথবা নিকটতম হাসপাতালের জরুরি বিভাগে রেফারড করবেন।

প্রতিটি ১০ মিনিটের পরামর্শের জন্য খরচ মাত্র ১০০টাকা। এসময়ই ডাক্তার দ্বারা জারি করা সমস্ত নথি, যেমন মেডিকেল সার্টিফিকেট, রেফারেল নথি, প্রেসক্রিপশন এবং রসিদ, প্রতিটি পরামর্শের পরে আপনার অ্যাপে প্রেরন করা হবে।

পরামর্শ ফি বিভিন্ন মোবাইল ব্যাংকিং সিস্টেম অথবা অনলাইন পেমেন্টের মাধ্যমে দেয়া যাবে। এছাড়া হেলথ প্যাকেজ কার্ড ক্রয় করেও কল করা যাবে।